কুমারঘাট মহকুমা হাসপাতালে নেই পর্যাপ্ত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী , উদ্বেগ
কুমারঘাট মহকুমা হাসপাতালে নেই পর্যাপ্ত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী , উদ্বেগ

আগরতলা , ১৯ জানুয়ারি : রাজ্যে প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা। টেষ্টের নিরিখে ইতিমধ্যেই হাজারের ঘড় ডিঙিয়েছে মারন করোনা।রাজ্যে সাধারন মানুষের পাশাপাশি এখন কোভিডে আক্রান্ত হচ্ছেন চিকিৎসক থেকে স্বাস্থ্যকর্মীরা পর্যন্ত। ইতিমধ্যেই ঊনকোটি জেলার কুমারঘাট মহকুমা হাসপাতালে শেষ এক সপ্তাহে তিনজন চিকিৎসক সহ মোট ১৫ জন স্বাস্থ্যকর্মীর দেহে থাবা বসিয়েছে করোনা।আক্রান্তরা প্রত্যেকেই নিভৃতবাসে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের চিকিৎসক অনিন্দিতা শীল।অবস্থা বেগতিক দেখে হাসপাতাল জীবানুমুক্তকরনের জন্য নিদৃষ্ট সময়ের জন্য বন্ধ রাখতে হয়েছে হাসাপাতালের রোগী ভর্তীর কাজ।এদিকে হাসপাতালের মোট স্বাস্থ্যকর্মীর মধ্যে অর্ধেকের দেহে করোনার জীবানু মেলায় বর্তমানে রোগীদের পরিষেবা দিতে গিয়েও হিমসিম খেতে হচ্ছে অন্য কর্মীদেরকে।
যারা মানুষকে স্বাস্থ্য পরিষেবা দেবেন তাদের শরীরেই করোনার থাবায় একপ্রকার অচলাবস্থা রাজ্যের বিভিন্ন হাসপাতালগুলোতে। এদিকে শীতের শুরুতে কোভিডের বাড়বাড়ন্তের মধ্যেই দোসর হয়েছে ভাইরাল জ্বর।গোটা রাজ্যের সাথে কুমারঘাট মহকুমা জুড়েও প্রকোপ বাড়ছে এই জ্বরের।প্রতিদিন জ্বরের থাবায় কুপকাত হচ্ছেন মানুষ।এই পরিস্থিতিতে মহকুমা হাসপাতালে নেই পর্যাপ্ত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী।

আরো পড়ুন