সামাজিকতার অনন্য নজির, ব্যক্তিগত উদ্যোগে হোমিওপ্যাথিক স্বাস্থ্য শিবির
সামাজিকতার অনন্য নজির, ব্যক্তিগত উদ্যোগে হোমিওপ্যাথিক স্বাস্থ্য শিবির

প্রসেনজিৎ দাস, আগরতলা , ০২ জুলাই : কথায় আছে চ্যারিটি বিগেইন্স অ্যাট হোম। অর্থাৎ ভালো কাজের সূচনা নিজ ঘর থেকেই করা উচিত। সামাজিকতার এই শিক্ষাকে পাথেয় করে জীবনের পথচলার অঙ্গীকার যাদের রয়েছে তাদের দ্বারাই সম্ভব হয় প্রকৃতপক্ষে সামাজিক কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করা। দীর্ঘ অধ্যাবসায়ের পর নিজেকে প্রতিষ্ঠা করা হয়তো অনেকেরই জীবনের স্বপ্ন হয়ে থাকে। তবে সেই স্বপ্নের দুয়ারে পৌঁছে সামাজিক দায়বদ্ধতার বাড়তি চিন্তাধারা হয়তো সবার মধ্যে সব সময় দেখা যায় না। তবে যাদের এই মানসিকতা থাকে তারা শত বাধার সম্মুখীন হওয়া সত্ত্বেও সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে পিছু হটতে পারেন না। এমনই এক নজির দেখা গেল বিশালগড় স্থিত আনন্দমার্গ স্কুল চত্বরে। ডক্টরস ডে উপলক্ষে বিদ্যালয়ে আয়োজন করা হয় বিনামূল্যে স্বাস্থ্য শিবিরের। প্রাথমিকভাবে আর পাঁচটা স্বাস্থ্য শিবিরের মত এই শিবিরের বাহ্যিক রূপ দেখা গেলেও এই শিবিরের রয়েছে কিছু বিশেষত্ব। বিনামূল্যে এই স্বাস্থ্য শিবিরের উদ্যোক্তা হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক ডাক্তার মৌটুসী সাহা। হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার মধ্যে বিশেষ দক্ষতা বজায় রাখার পাশাপাশি সামাজিক দায়বদ্ধতা উনার ব্যক্তিত্বের অন্যতম প্রস্ফুটিত দিক হিসেবে পরিচিত। এরই অঙ্গ হিসেবে ব্যক্তিগত উদ্যোগে বিশালগড় আনন্দমার্গ স্কুলে বিনামূল্যে হোমিওপ্যাথি স্বাস্থ্য শিবিরের আয়োজন। 

সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলতে গিয়ে ডাক্তার মৌটুসী সাহা জানান, একদা এই স্কুলেরই ছাত্রী ছিলেন তিনি। কালের বিবর্তনে এবং সময়ের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় পড়াশোনার স্বার্থে ঘুরে বেড়াতে হয়েছে তাঁকে। তবে চিকিৎসক হিসেবে পরিচিতি অর্জনের পর থেকেই জন্মভূমি তথা বিশালগড়বাসীর জন্য কিছু একটা করার ইচ্ছা ছিল প্রবল। 

আর সেই প্রবল ইচ্ছার তাগিদেই সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত উদ্যোগে হোমিওপ্যাথি স্বাস্থ্য শিবির আয়োজনের স্পৃহা জাগে উনার। সংকল্প হিসেবে ধরে নেওয়া কর্মসূচিকে বাস্তবায়িত করতে কোন কসর বাদ রাখেননি তিনি। সফলতাও এসেছে সেই অক্লান্ত পরিশ্রমের হিসাবেই। শিবিরে মোট ১০০ জন সাধারণ মানুষকে বিনামূল্যে হোমিওপ্যাথিক স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদান করতে পেরে নিজেকে গর্বিত বোধ করেন তিনি। একই আগামী দিনে আরো বেশি করে সামাজিক কর্মকাণ্ডে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে অভিপ্রায় রাখেন এই তরুণী চিকিৎসক। উনার এই কর্মকাণ্ডে ব্যাপক উচ্ছাসিত সংশ্লিষ্ঠ এলাকার আট থেকে আশি সকলে।

আরো পড়ুন