পুলিশ কর্মীর বাড়িতে চোরের উদ্যম তান্ডব ! মাথা হেট্ প্রশাসনের ....
পুলিশ কর্মীর বাড়িতে চোরের উদ্যম তান্ডব ! মাথা হেট্ প্রশাসনের ....

আগরতলা, ২৬ আগস্ট : সাংবিধানিক আইন প্রণয়নের ক্ষেত্রে পুলিশ প্রশাসন এর বিরুদ্ধে ভেদ বিচার এর অভিযোগ উঠলেও চোরেদের নজরে যে সবাই সমান তা হয়তো প্রমাণিত এবারে। সাধারণ মানুষের বাড়িঘরে চুরি করার পাশাপাশি এখন সমানে চুরি কান্ড সংগঠিত হচ্ছে প্রশাসনের কর্মীদের বাড়িতেও। আর এতেই প্রমান হয় যে নিশিকুটুম্বের মনে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি কতটা ভয় ভীতি রয়েছে।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পুলিশ কর্মীর বাড়িতে হানা দিয়ে সর্বস্ব নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় কার্যত রাজ্য প্রশাসনের প্রতি এমনটাই ধারণা আম জনতার । ঘটনা রাজধানীর জয়নগর ছয় নম্বর রোড এলাকায়। ঘটনার বিবরণে জানা যায় রাতের আঁধারে এলাকার দুটি বাড়িতে হানা দেয় চোরের দল। এলাকার গৌড় নারায়ন ধর এবং মনিলাল দাস এর বাড়িতে চুরি-কাণ্ড সংগঠিত করে নিশি কুটুম্বরা। যদিও গৌড় নারায়ন ধর এর বাড়িতে চোরের হদিশ পেয়ে যায় বাড়ির লোকজন। তাই কোনওক্রমে প্রাণ বাঁচিয়ে পালিয়ে যায় চোরেরা। অপরদিকে পুলিশ কর্মী মনি লাল দাস নিজে ছিলেন নাইট ডিউটিতে। আর ডিউটিরত অবস্থায় থাকাকালীন তার বাড়ির নির্জনতার সুযোগ এর সদ্ব্যবহার করে চুরের দল। নগদ অর্থ সহ সোনার গহনা থেকে শুরু করে সর্বস্ব নিয়ে যায় চুরেরা। পুলিশ কর্মীর বাড়িতে চোরের হানায় রীতিমতো চাঞ্চল্য গোটা এলাকায়। একদিকে পুলিশ প্রশাসনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে যখন ক্ষোভে ফুঁসছে জনগণ। ঠিক সেই সময়  পুলিশ কর্মীর বাড়িতে চোর এর হানা কার্যত রাজ্য পুলিশ প্রশাসনের মাথা হেট করে দিয়েছে ।

একদিকে ডাকাতি অন্যদিকে চুরি ছিনতাই বাজির মতো অপরাধের আঁতুড়ঘরে পরিণত হতে চলেছে শহর আগরতলা। এক্ষেত্রে কবে নাগাদ তৎপর ভূমিকা গ্রহণ করবে রাজ্য পুলিশ প্রশাসন সেদিকেই তাকিয়ে গোটা রাজ্যের মানুষ। প্রশ্ন জাগছে যেখানে  নিরাপদ নন খোদ নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা প্রশাসনের কর্মীরা। সেখানে সাধারণ মানুষকে তাঁরা নিরাপত্তা দেবে কি ? 

আরো পড়ুন