অবৈধ সম্পর্ককে বৈধতা দিতেই কি ফাঁসিতে আত্মঘাতী যুগল ? চাঞ্চল্য
অবৈধ সম্পর্ককে বৈধতা দিতেই কি ফাঁসিতে আত্মঘাতী যুগল ?  চাঞ্চল্য

বিশালগড় , ৩ আগষ্ট : অবৈধ সম্পর্কের জেরে একসাথে একই দড়িতে আত্মহত্যা করল যুগল। ঘটনা মধুপুর থানাধীন কৈয়াডেপা এলাকায়। ঘটনার বিবরণে জানা যায় কমলাসাগর বিধানসভার অন্তর্গত কৈয়াডেপা এলাকার বাসিন্দা  শংকর গোস্বামী বয়স আনুমানিক ৪৪। পিতা কানাইলাল গোস্বামী এবং তার প্রতিবেশী পূর্ণিমা দাস বয়স আনুমানিক ৩২। স্বামী পরিত্যাক্তা। তাদের দুইজনের মধ্যে বেশ কয়েক বছর যাবৎ অবৈধ সম্পর্ক ছিল বলে খবর। জানা যায় এই বিষয়ে কয়েকবার এলাকায় সালিশি সভাও হয়েছিল কিন্তু তাদের সম্পর্ক ছিল অটুট।  তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে এই সম্পর্ক মেনে নেওয়া হয় নি। নানা ভাবে তাদের একে অপরের কাছ থেকে দূরে সরে যাওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছিল। অবশেষে অনেকটা বাধ্য হয়েই রবিবার রাতে পরিবারের অজান্তে পার্শ্ববর্তী রাবার বাগানে দুজনেই একসাথে একই দড়িতে ঝুলে  আত্মহত্যা করে।  আজ সকালে রাবার বাগানের মালিক বাগানে গেলে ঘটনাটি নজরে আসে তার। খবর দেওয়া হয় মধুপুর থানায় পুলিশ মৃতদেহ দুটি উদ্ধার করে মধুপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মর্গে নিয়ে আসে ময়নাতদন্তের জন্য। জানা যায় মহিলার দুইটি সন্তান একটি ছেলে বয়স ১১ এবং একটি মেয়ে বয়স ৬ বছর। এদিকে আরো জানা যায় মৃত শংকর গোস্বামীর অবৈধ সম্পর্কের কারণে তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যায় আগেই। সব মিলিয়ে সমগ্র ঘটনায় সংশ্লিষ্ট এলাকায় চাঞ্চল্য বিরাজ করছে। 

আরো পড়ুন